ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৮ কার্তিক ১৪২৪

প্রচ্ছদ » দেশের খবর » বিস্তারিত

হাতিয়ায় চাঁদা না দেওয়ায় মাছের আড়তে হামলা

২০১৭ অক্টোবর ১২ ১৭:২৬:৫০
হাতিয়ায় চাঁদা না দেওয়ায় মাছের আড়তে হামলা

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় এক মাছ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে তার মাছের আড়তে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সন্ত্রাসীরা আড়তের বরফ বাক্স, ক্যাশ বাক্সসহ পুরো দোকান কুপিয়ে খণ্ড খণ্ড করে নদীতে ফেলে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মাছ ব্যবসায়ী মো. সহিদ উল্যাহ নিজাম। তিনি ঘটনাটি পুলিশকে জানালেও কোনও মামলা করেননি।

মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের চরবগুলা ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। দাবিকৃত চাঁদা না দেওয়ায় মাধু সন্ত্রাসী ও তার বাহিনী এ হামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, মো. মাধু নামে স্থানীয় এক সন্ত্রাসী দীর্ঘদিন ব্যবসায়ী নিজামের কাছে চাঁদা দাবি করে আসছিল। বিভিন্ন সময় পাঁচ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত চাঁদা দাবি করেছে মাধু। কিন্তু চাঁদা দিতে রাজি না হওয়ায় মঙ্গলবার মাধুর নেতৃত্বে ৮-১০ জন সন্ত্রাসী নিজামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় দোকানে তার কেরানি মো. আলমগীর উপস্থিত ছিলেন। তবে তিনি পালিয়ে গিয়ে জীবন বাঁচান। এর আগেও মাধু ও তার দলবল নানাভাবে ব্যবসায়ী নিজামকে নাজেহাল করেছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।

ব্যবসায়ী নিজাম বলেন,‘আমি ব্যবসার কাজে ঢাকায় আছি। এই সুবাদে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী মাধু, মিরাজ ও অলি উদ্দিনসহ ৮-১০ জন সন্ত্রাসী আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে। সন্ত্রাসীরা আমার মাছের আড়তের বরফ বাক্স, ক্যাশ বাক্সসহ পুরো দোকান কুপিয়ে খণ্ড খণ্ড করে নদীতে ফেলে দেয়। এখন শুধু শূন্য মাটির ভিটে পড়ে রয়েছে।’

এদিকে অভিযোগের কথা অস্বীকার করে মো. মাধু বলেন, ‘নিজামের সঙ্গে মিরাজ নামে স্থানীয় এক ব্যবসায়ীর দ্বন্দ্ব রয়েছে। তারই জের ধরে হয়তো হামলার ঘটনা ঘটতে পারে। আমি এর সঙ্গে যুক্ত নই।’

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন,‘ঘটনার বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

(আইইউএস/এসপি/অক্টোবর ১২, ২০১৭)