ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল » বিস্তারিত

ঈদ বাজারে সাড়া ফেলেছে ঘাগড়া-হুররম-ভেল্কি

২০১৯ মে ২৬ ১৭:৩৫:৩০
ঈদ বাজারে সাড়া ফেলেছে ঘাগড়া-হুররম-ভেল্কি

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের পোশাকেই বেশি জমজমাট এবারের ঈদ বাজার। এবছরও রাজধানীর বিপনীবিতাগুলো ঘুরে দেখা গেল বাহারী নাম আর ডিজাইনে মেয়েদের পোশাকই উজ্জ্বলতা বাড়িয়েছে ঈদ বাজারের।

নগরীর মৌচাক মার্কেট, ফরচুন শপিং মল, সেন্টার পয়েন্ট শপিং মল, কর্ণফুলী গার্ডেন সিটি ও পীর ইয়ামেনী মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে মেয়েদের পোশাকের দোকানেই ভিড় অনেক বেশি। বেশ চমকও রয়েছে এবারের ঈদ বাজারে।

দোকানীরা জানালেন, এবছর ঈদ বাজারে মেয়েদের ঘাগড়া, হুররম আর ভেল্কি এই তিনটি পোশাকের প্রতিই বেশি ঝোঁক সবার। এর মধ্যে হুররমই এবার বেশি সাড়া ফেলেছে।

জনপ্রিয় তুর্কি টিভি সিরিয়াল সুলতান সুলেমান-এ সুলতানের বেগম হুররমের নামানুসারে নাম রাখা হয়েছে পোশাকটির। এছাড়া ইন্ডিয়ান টিস্যু কাপড়ের নানা আইটেমের পোশাকও নজর কাড়ছে এদেশের নারীদের।

মৌচাক মার্কেটের এক দোকানী জানালেন, সব বয়সীদের জন্যই এবার তারা সাজিয়েছেন পসরা। তবে মেয়েদের পোশাকের নতুনত্বের প্রতিই তারা বেশি নজর দিয়েছেন। এ বছর মেয়েদের পোশাকের মধ্যে ভেল্কি, ঘাগড়া ছাড়াও ইন্ডিয়ার টিস্যু কাপড়ের গাউন, কটিও বিক্রি হচ্ছে দেদারছে।

ফরচুর মার্কেটের এক বিক্রেতা জানালেন ইন্ডিয়ান টিস্যু কাপড়ের মধ্যে কটি, ঘাগড়া এসেছে তাদের দোকানে। গত বছর ঈদ বাজারে এসেছিল চন্ডি কাপড় আর এবছর এসেছে টিস্যু কাপড়।

দুই বছর আগে এসেছিল সিল্কের কাপড়। অর্থাৎ প্রতি বছর নতুন নতুন কাপড় আর নতুন নতুন নামে মেয়েদের পোশাক আসছে ঈদ বাজারে। কিশোরী-তরুণীরা এবার এই টিস্যু কাপড়ের দিকেই বেশি নজর দিচ্ছে বলেও জানান এই দোকানী।

কয়েকটি মার্কেট ঘুরে দেখা গেল অনেকেই পরিবার নিয়ে এসেছেন ঈদের কেনাকাটা করতে। শিশু থেকে শুরু করে বাদ যাচ্ছে না কিশোর যুবা কিংবা গৃহবধূরাও। নিজের পছন্দের পোশাকটি কিনতে ছুটছেন তারা এ দোকান থেকে সে দোকানে।

ফরচুর শপিং মলের নিয়াম বুটিকসের বিক্রয়কর্মী মোঃ সবুজ জানান, তারা এবার ঈদে নানা আইটেমের পোশাক দিয়ে সাজিয়েছেন দোকান। তবে নারীদের পছন্দের তালিকায় উপরের দিকে আছে হুররাম, শাওমী, কটি। দোকানে অনেক মহিলা ক্রেতারা আসছেন এবং পছন্দমতো পোশাকও কিনছেন তারা।

আরেক দোকান ফাইভ-ফোর শো-রুমের বিক্রয়কর্মী মাইনুল জানালেন, টিস্যু কাপড়ের ঘাগড়া এবছর পছন্দের শীর্ষে। এছাড়া বার্মি গাউনের চাহিদাও আছে বেশি। বিক্রি মোটামুটি ভাল বলেও জানালেন তিনি।

রামপুরা থেকে স্বপরিবারে মৌচাক মার্কেটে ঈদের কেনাকাটা করতে এসেছেন গোলাম রব্বানী। তিনি জানালেন, মেয়ের জন্য ঘাগড়া কিনবেন। ছেলের জন্য কিনবেন পাঞ্জাবী। স্ত্রীর জন্য শাড়ি কিনবেন। আর নিজের জন্য কিনবেন পাঞ্জাবী আর লুঙ্গী। এদিন গরম কম থাকায় কেনাকাটায় বেশ আরাম পাচ্ছেন বলেও জানালেন এই পরিবার প্রধান।

এদিকে বিভিন্ন মার্কেটের দোকানীরা জানালেন, গরমের তীব্রতা কমে আসায় লোকজন এখন মার্কেটমুখী হচ্ছেন। এছাড়া অনেকে বোনাস, বেতনও পাবেন এ সপ্তাহে। তাই চলতি সপ্তাহেই মূলত ঈদের বেচাবিক্রি বেশি হবে বলে তারা আশা করছেন।

(ওএস/এসপি/মে ২৬, ২০১৯)