ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬

প্রচ্ছদ » বিনোদন » বিস্তারিত

‘অভিনয়ের সুযোগ নেই এমন চরিত্রে কাজ করব না’

২০১৯ জুলাই ০৩ ১৬:২৪:১৭
‘অভিনয়ের সুযোগ নেই এমন চরিত্রে কাজ করব না’

বিনোদন প্রতিবেদক : চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ারের সূচনা করতে সুচনা আজাদের প্রস্তুতি পর্বেই চলে গেছে পাঁচ বছর। এ সময়ে তিনি টিভিসি, বিলবোর্ড মডেল এবং নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছেন। র‌্যাম্প মডেলিংয়ের মাধ্যমে তিনি চলাফেরায় ছন্দ এনেছেন। এরপরই তিনি সাইফ চন্দন পরিচালিত আব্বাস ছবিটিতে অভিনয় করেন। সুচনা আজাদ বলেন, অভিনয়ের সুযোগ নেই এমন কোনো চরিত্রে আমি অভিনয় করব না।

তিনি উল্লেখ করেন, আব্বাস ছবিতে তিনি পুরনো ঢাকার একজন ‘রাফ এ্যান্ড টাফ’ রমণীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। চরিত্রটিতে অভিনয় করে তিনি খুব মজাও পেয়েছেন।

আগামী শুক্রবার আব্বাস ছবিটি মক্তি পাবে। এ ছবিতে সুচনার বিপরীতে রয়েছেন নীরব। এছাড়া একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন সোহানা সাবা। এ ছবিটির কাজ শুরু হয়েছিল ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। সোহানা সাবার শিডিউল জটিলতায় ছবিটির নির্মিতি বিলম্বিত হয়েছে।

সুচনা আজাদ বলেন, আমার বরাবরই লক্ষ্য ছিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করব। অফারও পাচ্ছিলাম। কিন্তু ব্যাটে বলে মেলেনি বলে আর করা হয়নি। আসলে আমি খুঁজছিলাম একটি অভিনয় প্রধান চরিত্র। আব্বাসে এসে সেটা পেলাম। তাই করা হলো।

আব্বাস ছবিতে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি বলেন, সহ-শিল্পী হিসেবে তিনি নীরবের কাছ থেকে যথেষ্ট সহযোগিতা পেয়েছেন।

সুচনা আজাদ সেই ছোটবেলাতেই তার পিতার হাত ধরে দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জের সোনালী থিয়েটারের শিশু থিয়েটারে তার অভিনয়ে হাতেখড়ি। শিশু শিল্পী হিসেবে সেখানে তিনি ২০টি নাটকে অভিনয় করেছেন। তারপর লেখাপড়ায় মনোযোগী হন। এসএসসি পাস করার পর লেখাপড়া এবং ক্যারিয়ারের জন্য তিনি সপরিবারে ঢাকা চলে আসেন। ২০১৪ সালে র‌্যাম্প মডেলিংয়ের মাধ্যমে তিনি গ্ল্যামার জগতের সঙ্গে যুক্ত হন। এরপর তিনি ৩৫টি টিভিসি, অনেকগুলো বিলবোর্ড এবং বেশ কিছুর সাময়ীকীর মডেল হিসেবে কাজ করেন। এছাড়া চারটি ধারাবাহিক নাটক এবং ১৫টি এক ঘন্টার নাটকেও কাজ করেছেন। দিপংকর দীপন পরিচালিত গোপী ঘায়েন বাঘা বায়েন নাটকেও তিনি অভিনয় করেন।

সুচনা আজাদ জানান তিনি ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটি থেকে হোটেল ম্যানেজমেন্টে বিবিএ করেছেন। হোটেল ম্যানেজমেন্টে পড়াশোনা করে অভিনয়ে এলেন কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সত্যিকার কথায় আমি অর্থ উপার্জনের জন্য গ্ল্যামার জগতে আসিনি। একটি শপিংমলে আমার একটি শো-রুম আছে। আসলে ফিনল্যান্ডে আমাদের হোটেল ব্যবসা আছে। এক সময় আমাকেই সেই হোটেলের হাল ধরতে হবে। সেজন্যই আমার হোটেল ম্যানেজমেন্টে পড়াশোনা করা।’ সুচনা জানান, পরিবারে তিন ভাইবোনের মধ্যে তিনিই সবার বড়।

বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে সুচনা, আব্বাসের প্রচার-প্রচারণায় অংশগ্রহণ করছে। আমরা চাই দর্শকের কাছে ছবিটির তথ্য পৌঁছে দিতে। তারা ছবিটি দেখবেন কিনা সেটা তাদের ব্যাপার। তবে আমরা ছবিটি দেখার জন্য তাদের আহ্বান জানাচ্ছি।

(এমএস/এসপি/জুলাই ০৩, ২০১৯)