ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

প্রচ্ছদ » দেশের খবর » বিস্তারিত

তিন এতিমের ভাগ্য বদলে দিলেন জয়দেব চৌধুরী

২০১৯ জুলাই ১২ ০০:০১:৫৮
তিন এতিমের ভাগ্য বদলে দিলেন জয়দেব চৌধুরী

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : এতদিন অনেক দরিদ্র অথচ মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের গোপনে লেখাপড়ার যোগান দিয়ে এসে এবার বিনে পয়সায় পুলিশে চাকরি দিয়ে তিন এতিমের ভাগ্য বদলে দিলেন নেত্রকোণার পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী (বিপিএম সেবা)।

নেত্রকোণা সরকারি শিশু পরিবারের ৩ ছেলে এখন পুলিশ পরিবারের সদস্য। জেলার এতিম সন্তানদের একমাত্র আশ্রয়স্থল সরকারী এই শিশু পরিবার। ১৯৭৩ সালে সরকারি এ প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে শুরু করে এই প্রতিষ্ঠানে প্রথমবারের মতো ৩ জন এতিম সন্তান সরকারি পুলিশের চাকরি পেল। চাকরি হওয়ার খবর নিশ্চত হয়ে পুরো শিশু পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা।

নিজেদের যোগ্যতায় বিনে পয়সায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাওয়া শিশু পরিবারের তিন সদস্যদের মধ্যে মোঃ আব্দুল মান্নান, মোঃ সাদেকুল রহমান ও মোঃ লিংকন মিয়া রয়েছেন। আব্দুল মান্নানের বাড়ি নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামে। তার বাবা মৃত নূরুল ইসলাম। মোঃ সাদেকুল নেত্রকোনা সদর উপজেলার পূর্ব মেদনি গ্রামের মৃত সাদেক মিয়ার ছেলে এবং মোঃ লিংকন মিয়া আটপাড়া উপজেলার বাউশা গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে।

সরকারি শিশু (বালক) পরিবারের উপ তত্বাবধায়ক তারেক হোসেন জানান, কোন প্রকার ঘুষ ও তদবির ছাড়া শিশু পরিবারের ৩ সদস্য পুলিশের চাকরি পাওয়ায় তাদের ভাগ্য পাল্টে গেছে। এই তিনটি পরিবার আবার নতুন পথের স্বপ্ন দেখতে পারবে। তিনি শিশু পরিবারের এই তিন সদস্যকে নিয়ে গর্ববোধ করছেন।

অপরদিকে সততার উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছা পূরণে বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি, নেত্রকোনা জেলা পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী সহ নিয়োগ বোর্ডের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী বলেন, শিশু পরিবারের তিন সদস্য মান্নান, সাদেকুল ও লিংকন তাদের মেধা ও যোগ্যতায় চাকরি পেয়েছেন। এজন্য তিনি খুব গর্বিত ও আনন্দিত।

পুলিশ সুপার বলেন, তারা পুরনো দিনের দুঃখ কষ্ট ভুলেগিয়ে নতুন জীবনের স্বপ্নবুনতে শুরু করবেন। একই সঙ্গে পুলিশ বিভাগের কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মেনে চাকুরী জীবনে সততার স্বাক্ষর রাখবেন।

শিশু পরিবারের সদস্য কেন্দুয়ার ছবিলা গ্রামের এতিম আব্দুল মান্নান তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, বিনে পয়সায় পুলিশের এই চাকরি আমার ভাগ্য বদলে দেবে। এজন্য আমি পুলিশ সুপারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

সরকার শিশু পরিবারের তিন সদস্যের বিনে পয়সায় পুলিশের চাকুরি হওয়ায় পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক মোঃ মঈন উল ইসলাম।

(এসবি/এসপি/জুলাই ১১, ২০১৯)