ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

প্রচ্ছদ » মুক্তিযুদ্ধ » বিস্তারিত

২৪ জুলাই, ১৯৭১

‘দুনিয়ায় এমন কোনো শক্তি নেই যা পাকিস্তানকে ধ্বংস করতে পারে’

২০১৯ জুলাই ২৪ ০০:২৭:২২
‘দুনিয়ায় এমন কোনো শক্তি নেই যা পাকিস্তানকে ধ্বংস করতে পারে’

উত্তরাধিকার ৭১ নিউজ ডেস্ক :কুমিল্লায় পাকহানাদার বাহিনী এক কোম্পানীর সৈন্য গোঙ্গজ পার হয়ে মুক্তিবাহিনীর কাটেশ্বর ঘাঁটিরদিকে অগ্রসর হলে মুক্তিবাহিনীর অগ্রবর্তী অবস্থানের যোদ্ধারা মর্টার ও হালকা মেশিন গানের সাহায্যে বাধা দেয়। দু‘ঘন্টা যুদ্ধের পর পাকসেনারা মুক্তিযোদ্ধাদের গুলির মুখে পিছু হটতে বাধ্য হয়। এ সংঘর্ষে পাকবাহিনীর ১৫ জন সৈন্য হতাহত হয়।

বিকেল পাঁচটায় ক্যাপ্টেন গাফফারের নেতৃত্বে এক প্লাটুন যোদ্ধা কুমিল্লায় ৫০/৬০ জন পাকসেনা ও স্থানীয় দালালদের নওগাঁও স্কুল প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিতব্য সমাবেশের ওপর অতর্কিত আক্রমণ চালায়। এই আক্রমণে পাকসেনাদের ৩০ জন সৈন্য ও ৭ জন দালাল নিহত হয়। এতে সমাবেশ ভেঙ্গে যায় এবং পাকসেনারা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। মুক্তিযোদ্ধারা নিরাপদে নিজ ঘাঁটিতে ফিরে আসে।

বরিশালে পাকহানাদার বাহিনী দু‘টি গানবোটের সাহায্যে মুক্তিবাহিনীর সাতলা বাগদার পেয়ারা বাগান ঘাঁটি আক্রমণ করে। মুক্তিযোদ্ধাদের ঘাঁটি এলাকা পাকসেনাদের কাছে নিহ্নিত হয়ে যাওয়ায় যোদ্ধারা ঘাঁটি ছেড়ে গৌরনদী থানার মহিলারা জমিদার বাড়িতে নতুন ঘাঁটি স্থাপন করে।

যুগান্তর পত্রিকার নিজস্ব প্রতিনিধি বাংলাদেশের কনিষ্ঠতম মুক্তিসেনা হোসেন জোযারদারের কথা লিখেন। তাঁর ভাষায়, ওর সাথে আরো প্রায় ৫০০ তরুন ট্রেনিং নিয়েছে। ওর চোখে ফ্রন্টের স্বপ্ন। গাছ ছাড়া অন্য কোন লক্ষ্যভেদ এখনো করেনি। এবার আসল লক্ষ্য শত্রুসেনা। হাতের টিপ ঠিক আছে-এবার ফ্রন্ট। ওর চোখে-মুখে উল্লাস। ও ফ্রন্টে যাবে।

ঢাকার সামরিক কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেন, আগামীকাল (২৫ জুলাই) বে-আইনী ঘোষিত আওয়ামী লীগ নেতা তাজউদ্দিন আহমদ, আবদুল মান্নান ও দি পিপল পত্রিকার সম্পাদক আবিদুর রহমানের সম্পত্তি প্রকাশ্য নিলামে বিক্রি করা হবে।

মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন আরউইন ভারতে বাংলাদেশের শরণার্থী প্রসঙ্গে সিনেটের বিচার বিভাগীয় সাব-কমিটিতে বলেন, শরণার্থীদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন কাজ ত্বরান্বিত করার জন্য পূর্ব-পাকিস্তান ভারত সীমান্তে জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক দল মোতায়েনের প্রস্তাবকে পাকিস্তান স্বাগত জানিয়েছে কিন্তু ভারত তা গ্রহণ করেনি।

ঈশ্বরদী থানা শান্তি কমিটির আহবায়ক আরিফুদ্দিনের সভাপতিত্বে স্বাধীনতা বিরোধীদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সাবেক মন্ত্রী ফকরুদ্দিন বলেন, ‘দুনিয়ায় এমন কোনো শক্তি নেই যা পাকিস্তানকে ধ্বংস করতে পারে।’
তিনি সবাইকে গ্রাম রক্ষীবাহিনীতে যোগ দিতে আহ্বান জানান। সভায় কাউন্সিল মুসলিম লীগের পূর্ব পাকিস্তান শাখার প্রচার সম্পাদক বলেন, ‘পাকিস্তান বিভক্ত করার চক্রান্তে লিপ্ত দৃষ্কৃতকারী দমনে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ এবং তাদের চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে।’

তথ্যসূত্র : মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর।

(ওএস/এএস/জুলাই ২৪, ২০১৯)