ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

প্রচ্ছদ » বিনোদন » বিস্তারিত

এবার মান্নার জন্মোৎসব পালনের উদ্যোগ

২০১৯ সেপ্টেম্বর ২৮ ১৩:৫৯:৪১
এবার মান্নার জন্মোৎসব পালনের উদ্যোগ

বিনোদন প্রতিবেদক : সালমান শাহের জন্মোৎসব পালনের পর মান্নার জন্মোৎসব পালনের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। মান্নার স্ত্রী শেলী কাদের এই জন্মোৎসব পালনে সম্মতি দিয়ে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। এফডিসির তিন ফ্লোরে জ্যাম ছবির সেটে বসেই এসব কথা আলোচনা হচ্ছিল। তখন সেখানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা। তিনি বলেছেন, মান্নার জন্মোৎসব পালিত হলে তিনিও উপস্থিত থাকবেন।

মান্নার এই জন্মোৎসব পালনের উদ্যোগ নিচ্ছে একটি সাংবাদিক গ্রুপ। এই গ্রুপটি সারাদেশে মান্নার ছবি প্রদর্শনের লক্ষ্য নিয়ে ইতোমধ্যে কাজও শুরু করেছে। তারা এই জন্মোৎসব উদযাপনের জন্য যে কমিটিটি গঠন করবে তাতে স্থান পাবে চলচ্চিত্র শিল্পের বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরাও। তাতে মিডিয়াকর্মীরাতো থাকবেনই। এ বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়ে পরিচালক এফআই মানিক বলেন, ‘মান্নার দর্শক আছে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত। এমন দর্শক শাকিব খানেরও নেই। তাই মান্নার চলচ্চিত্র প্রদর্শনী কেবল ঢাকা কেন্দ্রিক হলেই চলবে না। নতুন ছবি মুক্তি পাওয়ার মতো ছবির প্রদর্শনি ছড়িয়ে দিতে হবে গ্রাম পর্যন্ত।’

এফআই মানিক বলেন, ‘মান্নার জন্মদিন পালনটা সার্বজনীন করে তোলার উদ্যোগ নিলে সেটা সবার কাছেই প্রশংসিত হবে। কিন্তু একটি বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে, মান্না উৎসব কেন করা হচ্ছে তার একটা যুক্তিযুক্ত কারণের দিকে।’
এই সাংবাদিক গ্রুপের একজন বলেন, মান্নার জন্মোৎসব পালন কালে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হবে। তাতে সাংবাদিকসহ মান্নার আশপাশের লোকদের লেখা স্থান পাবে।

অন্যদিকে ঢাকা মহানগরীর মধুমিতা সিনেমা হলে সালমান শাহ জন্মোৎসব-২০১৯ শেষ হয়েছে। উৎসবে সালমান শাহ অভিনীত সাতটি ছবি প্রদর্শিত হয়েছে। ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে কেয়ামত থেকে কেয়ামত, তোমাকে চাই’, মায়ের অধিকার, চাওয়া থেকে পাওয়া, স্বপ্নের পৃথিবী, অন্তরে অন্তরে এবং সত্যের মৃত্যু নেই। এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। ঢুলি কমিউনিকেশনস আয়োজিত ও টিএম ফিল্মস নিবেদিত প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই উৎসবের প্রথম দিন থেকেই দর্শকদের উপচেপড়া ভিড় ছিল। শেষ দিনে প্রদর্শিত হয় সত্যের মৃত্যু নেই। ছবিটিতে একটি ফাঁসির দৃশ্য আছে। তাই শেষ দিনে সত্যের মৃত্যু নেই ছবিটির প্রদর্শন বেশ তাৎপর্যবহ।

(এম/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯)