ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

প্রচ্ছদ » অর্থ ও বাণিজ্য » বিস্তারিত

লভ্যাংশের তথ্য দিল ৮ কোম্পানি

২০১৯ অক্টোবর ৩০ ১৬:০৩:২৩
লভ্যাংশের তথ্য দিল ৮ কোম্পানি

স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ কোম্পানি লভ্যাংশ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। এর মধ্যে ৩টি কোম্পানি লভ্যাংশ হিসেবে শেয়ারহোল্ডারদের নগদ টাকার পাশাপাশি শেয়ার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একটি কোম্পানি শুধু নগদ টাকা এবং ৩টি কোম্পানি শুধু বোনাস শেয়ার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বাকি একটি কোম্পানি কোনো ধরনের লভ্যাংশ দেবে না।

কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদ ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে লভ্যাংশের এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বুধবার (৩০ অক্টোবর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে জানানো হয়েছে।

লভ্যাংশ ঘোষণার পাশাপাশি কোম্পানিগুলো তা শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) তারিখ নির্ধারণ করেছে। একই সঙ্গে লভ্যাংশ প্রাপ্ত যোগ্য বিনিয়োগকারী নির্ধারণে রেকর্ড জানিয়েছে।

কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- আমরা টেকনোলজি, স্টাইল ক্রাফট, আমরা নেটওয়ার্ক, ড্রাগন সোয়েটার, রেনেটা, ফাইন ফুড, আরডি ফুড ও গোল্ডেন সন। এর মধ্যে গোল্ডেন সান শেয়ারহোল্ডারদের কোনো ধরনের লভ্যাংশ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

লভ্যাংশ ঘোষণার কারণে আজ (বুধবার) কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দামে কোনো সার্কিট ব্রেকার থাকবে না। অর্থাৎ শেয়ারের দাম যত খুশি বাড়তে অথবা কমতে পারে।

আমরা টেকনোলজি

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এজিএম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৬ ডিসেম্বর। আর রেকর্ড ডেট ধরা হয়েছে ২০ নভেম্বর। সমাপ্ত হিসাব বছরে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৩৮ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৩ টাকা ৬২ পয়সা।

স্টাইল ক্রাফট

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ১৫০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এজিএম নির্ধারণ হয়েছে ১৫ ডিসেম্বর এবং রেকর্ড ডেট ২৮ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৭ টাকা ৭৪ পয়সা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৬৬ টাকা ৭ পয়সা।

আমরা নেটওয়ার্ক

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ৬ শতাংশ নগদ ৬ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এজিএম ২৬ ডিসেম্বর এবং রেকর্ড ডেট ১৯ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৪ টাকা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৩৫ টাকা ৩২ পয়সা।

ড্রাগন সোয়েটার

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এজিএম ১৪ ডিসেম্বর এবং রেকর্ড ডেট ২৪ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৬৫ পয়সা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৫৩ পয়সা।

রেনেটা

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ১০০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এজিএম ২১ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। আর রেকর্ড ডেট ধরা হয়েছে ২০ নভেম্বর। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৪৬ টাকা ৬৩ পয়সা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ২৩০ টাকা ৯০ পয়সা।

ফাইন ফুড

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ হিসেবে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এমজিএম ১২ ডিসেম্বর এবং রেকর্ড ডেট ১৯ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২৫ পয়সা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১০ টাকা ৮৪ পয়সা।

আরডি ফুড

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডাদের ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য এমজিএম ৭ ডিসেম্বর এবং রেকর্ড ডেট ২১ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৪৬ পয়সা এবং এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৪ টাকা ৯০ পয়সা।

(ওএস/এসপি/অক্টোবর ৩০, ২০১৯)