ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

প্রচ্ছদ » খেলা » বিস্তারিত

শেখ হাসিনার জন্য ৫০ পদের রাজকীয় ভোজের আয়োজন গাঙ্গুলির

২০১৯ নভেম্বর ০৬ ১৫:০৩:৪১
শেখ হাসিনার জন্য ৫০ পদের রাজকীয় ভোজের আয়োজন গাঙ্গুলির

স্পোর্টস ডেস্ক : প্রথমবারের মতো পূর্ণাঙ্গ সফরে ভারত গিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এরই মধ্যে খেলে ফেলেছে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ। বৃহস্পতিবার মাঠে গড়াবে দ্বিতীয় ম্যাচটি। তবে এই সফরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও জাকজমকপূর্ণ আয়োজন অপেক্ষা করছে একদম শেষে। যেখানে টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ঐতিহাসিক ইডেন গার্ডেনসে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

আগামী ২২ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া সেই ম্যাচটিকে স্মরণীয় করে রাখতে নানান উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা- বিসিসিআই এবং ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল- সিএবি। যার অন্যতম বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানানো। এরই মধ্যে সে আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর আয়োজনকে বর্ণাঢ্য ও স্মরণীয় করে রাখতে ইডেন টেস্টের প্রথমদিন রাজকীয় মধ্যাহ্নভোজ আয়োজন করতে যাচ্ছে সিএবি। ম্যাচের প্রথমদিন টসের আগে থেকে শুরু করে কয়েক ঘণ্টা ইডেনে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার। আর এ সময়ের মাঝেই প্রায় ৫০ পদের রাজকীয় মধ্যাহ্নভোজের ব্যবস্থা করা হবে তার জন্য।

কী থাকবে সেই মধ্যাহ্নভোজে? ভারতীয় দৈনিক এই সময়ের প্রতিবেদন মতে, গঙ্গার ইলিশ, পাবদা সর্ষে, ভেটকি পাতুরি, ডাব চিংড়ি- মাছের এই পদগুলো ছাড়াও দুই বাংলার প্রথামাফিক সবরকম জনপ্রিয় পদই থাকবে অতিথি আপ্যায়নে। যার মধ্যে থাকছে শুক্তো, আলু পোস্ত, ফুলকপির রোস্ট, ছানার ডালনাসহ অন্তত ৫০'র বেশি পদ।

এছাড়া ভাত, রুটি, পোলাও, পায়েস, চাটনির মতো পদগুলি তো থাকছেই। যেসব অতিথির মাছ পছন্দ নয়, তাদের জন্য থাকবে মুরগি ও খাসির হরেকরকম পদ। মঙ্গলবার সিএবি কর্তাদের সঙ্গে এ নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে শহরের এক পাঁচ তারকা হোটেলের। মধ্যাহ্নভোজের চূড়ান্ত মেন্যু অবশ্য ঠিক করবেন বিসিসিআইয়ের নতুন সভাপতি ও সিএবির সাবেক প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি।

শুধু মধ্যাহ্নভোজ দিয়েই থামছে না শেখ হাসিনাকে আপ্যায়নের আয়োজন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক মানের বিশেষ পোশাক প্রস্তুতকারককে দিয়ে ডিজাইনার শাড়ি ও শাল বানাচ্ছে সিএবি। এছাড়া বাংলার ঐতিহ্য মেনে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকেও দেওয়া হবে বিশ্ব বাংলার নানা উপহার।

(ওএস/এসপি/নভেম্বর ০৬, ২০১৯)