ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৬

প্রচ্ছদ » খেলা » বিস্তারিত

‘ভারত-অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলার যোগ্যতা নেই পাকিস্তানিদের’

২০২০ মার্চ ১৯ ১৫:০৯:৪৭
‘ভারত-অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলার যোগ্যতা নেই পাকিস্তানিদের’

স্পোর্টস ডেস্ক : ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার ক্রিকেটীয় প্রতিদ্বন্দ্বিতা অনেক আগে থেকেই। রাজনৈতিক বিষয়ে যেমন দুই দেশের উচ্চপর্যায়ে সবসময় ঝামেলা লেগেই থাকে, তেমনি ক্রিকেট মাঠেও ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার লড়াইটাও ছাপিয়ে যায় প্রতিদ্বন্দ্বিতার মাত্রা। মনে হয় যেনো অস্তিত্বের লড়াইয়ে নেমেছে দুই দল।

সে লড়াইয়ের আগুনে এবার যেনো ঘি ঢাললেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক জাভেদ মিঁয়াদাদ। তাও নিজ দেশের ক্রিকেটারদের যোগ্যতার ব্যাপারে প্রশ্ন তুলে। মিঁয়াদাদের মতে ভারত তথা বিশ্বের কোনো বড় দলের হয়ে খেলার যোগ্যতা নেই পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের।

খেলোয়াড়ি জীবনে ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বমানের ছিলেন মিঁয়াদাদ। এখনও তাকে পাকিস্তানের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রাখেন সব বিশ্লেষকরা। টেস্টে ৫২.৬০ গড়ে ৮৮৩২ ও ওয়ানডে ৪১.৭০ গড়ে ৭৩৮১ রানের পরিসংখ্যানই যথেষ্ঠ আশি-নব্বইয়ের দশকে খেলা মিঁয়াদাদের সামর্থ্য প্রমাণের জন্য।

সেই মিঁয়াদাদ এখন যারপরনাই বিরক্ত নিজ দেশের ব্যাটসম্যানদের ওপর। তবে বোলারদের ওপর সন্তুষ্টি রয়েছে তার। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে দেয়া এক ভিডিওবার্তায় সে বিরক্তি প্রকাশ করে মিঁয়াদাদ বলেন, ‘আমি একটা প্রশ্ন করতে চাই, পাকিস্তানের কোনো ব্যাটসম্যান কি ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড বা দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলতে পারবে? আমাদের কোনো ব্যাটসম্যান এসব দলে জায়গা পাবে না।

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের মানসম্মত বোলার আছে কিন্তু ব্যাটিং লাইনআপে কেউ নেই। পুরো পৃথিবী চলে দৈনিক ভিত্তিতে। আজকে রান করেছো, টাকা নিয়ে চলে যাও। কালকে আবার রান করবে, আবার টাকা পাবে। তোমরা পেশাদার ক্রিকেটার। যদি রান না করো, কাজ না করো, তাহলে টাকা নেবে কেন? এ জিনিসটা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে নিশ্চিত করতে হবে। তাদের এটা নিশ্চিত করতে হবে যে, কেউ যেন জাতীয় দলটাকে নিজেদের সম্পত্তি মনে না করে।’

এসময় ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ব্যবস্থার কথা উল্লেখ করে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক আরও বলেন, ‘ইংল্যান্ড বা অস্ট্রেলিয়ার মতো দলগুলো সিরিজ বাই সিরিজ ভিত্তিতে দল সাজায়। এক সিরিজ আগে ৫০০ রান করলেও তারা সেটা মাথায় রাখে না। পাকিস্তানই বিশ্বের একমাত্র দল, যেখানে একটা সেঞ্চুরির পর ১০ ম্যাচ খেলা নিশ্চিত হয়ে যায়।’

‘ব্যাটসম্যানরা নিয়মিত খারাপ করছে কিন্তু কারও কোনো মাথাব্যথা নেই। যে কারণে এই দলটার অনেক অনেক সমস্যা রয়েছে। ভারতের উদাহরণই ধরে, ওরা ৭০, ৮০, ১০০, ২০০ করার পরে বলে যে এটা ভালো পারফরম্যান্স। কিন্তু এসব দলগুলোতে খেলার মতো কোনো ব্যাটসম্যান নেই আমাদের।’

(ওএস/এসপি/মার্চ ১৯, ২০২০)