ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

প্রচ্ছদ » মিডিয়া » বিস্তারিত

শ্রম আইন লঙ্ঘন করে এসএটিভিতে ছাটাইয়ে বিএমএসএফ'র ক্ষোভ

২০২০ মার্চ ২২ ১৭:৩৯:০২
শ্রম আইন লঙ্ঘন করে এসএটিভিতে ছাটাইয়ে বিএমএসএফ'র ক্ষোভ

উত্তরাধিকার ৭১ নিউজ ডেস্ক : শ্রম আইন লঙ্ঘন করে সাংবাদিক ছাটাইয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিএমএসএফ। গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেন, এসএটিভি ২৭ জন সংবাদকর্মী ছাটাই করে শ্রম আইন পুরোপুরি লঙ্ঘন করেছে।

আইনটিতে বলা আছে ২০০৬ এর ২ অনুচ্ছেদের ৬১-র ত ধারা অনুযায়ী- (ত) বেসরকারি রেডিও, টিভি চ্যানেল ও কেবল অপারেটর- হচ্ছে শিল্প প্রতিষ্ঠান। শিল্প প্রতিষ্ঠানের কোন শ্রমিককে ছাটাই বা চাকরিচ্যুত করতে হলে ১২০ দিনের নোটিশ দিতে হবে। নইলে ১২০ দিনের বেতন এবং প্রাপ্য সকল সুবিধা পরিশোধ করতে হবে। তা না করে কোন একটি দুষ্টুচক্র দেশের এই মহামারী করোনা চলাকালে সাংবাদিক ছাটাই চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন। মিডিয়া গুলোকে এভাবে চলতে দেয়া যায়না। তাই প্রয়োজন সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, দেশ স্বাধীনের ৪৯ বছরেও সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা প্রণীত হয়নি। সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়ন করা হলে কারো স্বার্থে ঘা লাগবে তাই এ পর্যন্ত প্রণীত হয়নি। প্রয়োজন সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন। তাও বিগত দুই বছর ধরে ডিমেতালে চলছে। দেশের বেশিরভাগ জেলা উপজেলায় এখনও তালিকা প্রণয়নের চিঠি পৌঁছেনি। দ্রুত সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা প্রণীত হলে মিডিয়া হাউজগুলো যা ইচ্ছা তা করতে পারতোনা। তাই প্রয়োজন জনমত সৃষ্টি করা।

বিএমএসএফ দীর্ঘ ৮ বছর ধরে সারাদেশের পেশাদার সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন, সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়নসহ সাংবাদিকদের স্বার্থ রক্ষায় ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য আন্দোলন কর্মসূচী চালিয়ে আসছে। এই দাবি বাস্তবায়ন করতে সকল সাংবাদিকের সমর্থন প্রয়োজন। ইতিমধ্যে দেশের প্রায় ৪০ ভাগ সাংবাদিক ১৪ দফা দাবিকে সমর্থন দিয়ে বিএমএসএফ'র পতাকাকে শক্তিশালী করে তুরছে।

(পিআর/এসপি/মার্চ ২২, ২০২০)