ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

প্রচ্ছদ » খেলা » বিস্তারিত

ফের ৩৫০ পরিবারকে খাবার দিচ্ছেন রুবেল

২০২০ মে ১২ ১৩:৩৬:৪৫
ফের ৩৫০ পরিবারকে খাবার দিচ্ছেন রুবেল

স্পোর্টস ডেস্ক : দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি তখনও প্রকট আকার ধারণ করেনি। কিন্তু মানুষের সমস্যার সুবিধা নিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরা বাড়িয়ে দিয়েছিল নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম। তখন থেকেই করোনা মোকাবিলায় সরব বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার রুবেল হোসেন।

সেসব ব্যবসায়ীদের আসল করোনাভাইরাস উল্লেখ করে রুবেল লিখেছিলেন, ‘মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং মুদি বাজারের সমস্ত জিনিসপত্রের দাম বেড়েই চলেছে, ধিক্কার জানাই ওই সমস্ত লোভী মুনাফাখোর ব্যবসায়ীদের যারা কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াচ্ছে তারাই আসলে দেশের করোনা ভাইরাস।’

এরপর জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যেও তিনি বলেছিলেন, সবাই যেন অসহায়দের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণসামগ্রী বাসায় বাসায় পৌঁছে দিয়ে আসে। তার কথা, নির্বাচনের সময় বাসায় বাসায় ভোট চাইতে যাওয়া গেলে, এখন কেন জরুরি প্রয়োজনে ত্রাণ বাসায় পৌঁছে দেয়া যাবে না?

তবে শুধু সমালোচনা করেই নিজের দায়িত্ব শেষ মনে করেননি রুবেল। করোনা পরিস্থিতির একদম শুরু থেকেই নিজের আশপাশের অসহায়-দুস্থ মানুষদের সাহায্য করছেন তিনি। যেভাবে পারছেন এগিয়ে আসছেন মানুষের কষ্ট দূর করতে।

এই কয়েকদিন আগেই নিজ শহর বাগেরহাটে নিজে উপস্থিত থেকে অভাবী মানুষদের মাঝে ২১৫ প্যাকেট খাদ্য বিতরণ করেছিলেন রুবেল। পরে আরেকবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে ৪৫০ পরিবারকে প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী দিয়েছিলেন তিনি।

সে ধারা বজায় রেখেছেন তিনি। গতকাল (সোমবার) তৃতীয়বারের মতো অসহায় মানুষদের পাশে খাবার নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন রুবেল। এবার তিনি সাহায্য করেছেন ৩৫০টি পরিবারকে। রুবেল নিজেও ভুলে গিয়েছেন কয়বার তিনি সাহায্য করছেন মানুষকে।

তাই নিজের ফেসবুক পেজে তিনি লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ! দ্বিতীয়বারের (আসলে তৃতীয়বার) মত বাগেরহাটে আমার নিজ এলাকায় ৩৫০টি পরিবারকে খাবার দিচ্ছি। ছোট ছোট অল্প থেকেই একদিন রচিত হবে করোনার গল্প।’

(ওএস/এসপি/মে ১২, ২০২০)