ঢাকা, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

প্রচ্ছদ » শিল্প-সাহিত্য » বিস্তারিত

বদরুল হায়দার’র দুটি কবিতা

২০২৩ মে ২৭ ১৭:০২:৩২
বদরুল হায়দার’র দুটি কবিতা







ডিজিটালে ভালোবাসার পাতালে

দূরে গেলে ভালোবাসার কদর বাড়ে।
সদর দরজা খুলে চোখ মেলে ভালোবাসা
পরিণত হয় প্রেমে। জ্যামে পড়ে না আমার স্বপ্ন।

কষ্টবীন আর বব মার্লিনের গান জড়ো হয় মনে।
আমি বেদনার ভীড় ঠেলে ইস্যুতে সিজির বৈঠকের
প্রেমের টিস্যুতে মুছে ফেলি ভিসুবিয়াসের চোখ।

তোমার অজ্ঞাত প্রয়োজন শতভাগ স্তব্ধতায়
মেলে ধরে শাপেবর। শুধু ভালোবাসারা পাল্টায়
প্রতিদিন প্রযুক্তি নির্ভর।

রীতিনীতি ও ভীতির অগোচরে জমা হয় প্রতিশ্রæতি।
চমক ও ব্যস্ততায় প্রত্যাহার হয় আবেগের ধারাবাহিকতা।
নির্বোধের ব্যাকরণে যুক্ত হয় প্রেমের শহর।

শীতল পরিতৃপ্তিতে চলে ভিত্তিহীন আকুলতা। তুমি
মনোজগতের কোষে অবশেষে বিষাদের চির অভিসারে
মুখ খোলো ঘোলাজলে।

প্রিয় হৃদয়ের সুর নত হয় দূরের আকাশে। স্যাটালাইটের
অভিলাষে হ্যাক হয় স্বপ্নের ঠিকানা। ফেজবুকে
তুমি আনমনা বসন্তের ষোলআনা পাঠ শেষে
নিরামিশে শুরু করো প্রেম প্রযোজনা।
আমি ডিজিটালে ভালোবাসার পাতালে ডুবে
খুঁজি তোমার অজানা।

বৃষ্টির শাসনে

রাতভর বৃষ্টির শাসনে আসন পেতেছে মনে
বৈপারিত্যের পাষাণ সমাদর।

ঝড়ো হাওয়ায় ওড়ে বেদনার হারিকেন
হৃদপিন্ডে সাইক্লোন কখনো টর্নেডো। আমি
নদী ভাঙনের অনাদরে টেনে নিই ভালোবাসার আদর।

প্রকৃতির মায়া কান্নায় আহত হয় স্বপ্নস্বাদ।
বিত্তবানের আবাদে তুমি হাইব্রিড ক্ষুধার্তের
যাদুবাদে হয়ে ওঠো জরুরী আশেক।

মেয়াদী প্রসেসে তুমি ভিজিট সাপোর্টে
ক্রয় করো সিটিং সার্ভিস। সর্ষেবাটা জোয়ার ভাটার টানে
আমি বিরহীর রসিকতায় খুঁজি আশিবিষ।

দৈন্যদশার প্রবল রসাতলে প্রতিদিন সূর্যডুবে।
বৃষ্টির শরীরে তুমি বেহাল দশায় হোয়াটস অ্যাপের
মেসেজে হও জেলিপিস।

আমি টুইটারে বাণিজ্যিক কারবারে শতসিদ্ধ করি
মনের আবেগ।