ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রচ্ছদ » পাশে দাঁড়াই » বিস্তারিত

বুয়েটে পড়ার সুযোগ পাওয়ায় আল আমিনকে বুকে টেনে নিলেন জেলা প্রশাসক

২০২৩ জুন ২৩ ১৯:০৪:৪৫
বুয়েটে পড়ার সুযোগ পাওয়ায় আল আমিনকে বুকে টেনে নিলেন জেলা প্রশাসক

মোঃ সিরাজ আল মাসুদ, টাঙ্গাইল : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) চান্স পাওয়া মো. আল আমিনকে বুকে টেনে নিলেন ও ভর্তি হওয়ার জন্য নগদ বিশ হাজার টাকা দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার। আশ্বাস দিলেন যেকোন সমস্যায় এই কৃতী ছাত্রের পাশে থাকার। গত বৃহস্পতিবার (২২ জুন) সন্ধ্যায় আল আমিনের ভর্তি হওয়ার জন্য নগদ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেছেন।

মো. আল আমিন সখীপুর উপ‌জেলার কচুয়া গ্রা‌মের ভ্যান চালক আজিজুল মিয়ার ছেলে। আল আমিন কচুয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৪.৭২ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। পরে সরকারি মুজিব কলেজ থেকে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে এবার বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। ভর্তি পরীক্ষায় ১০২০তম স্থান অর্জন করে ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বিভাগে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন কৃতী এ শিক্ষার্থী।

আল আমিন বলেন, ‘আমার বাবা-দাদা ভ্যান চালিয়ে আমার পড়াশোনার খরচ চালাতেন। এমন একটি পরিবার থেকে পড়াশোনা করা অনেক কষ্টসাধ্য ছিল। আমার বয়স যখন চার বছর, তখনই আমার মা মারা যান। আমার বাবা, দাদা-দাদি আমাকে পড়াশোনায় সব সময় উৎসাহ দিতেন। দরিদ্র থাকার পরও পিছপা হননি তারা।’একজন দক্ষ প্রকৌশলী হয়ে পরিবারের হাল ধরার পাশাপাশি দেশের সেবা করতে চান আল আমিন।

আল আমিনের বাবা আজিজুল মিয়া বলেন, ‘টাকার অভাবে ছেলেকে ভালো কোচিং সেন্টারে ভর্তি করতে পারিনি। আল আমিন নিজে নিজে পড়াশোনা করেই বুয়েটে চান্স পেয়েছে। ঢাকায় সন্তান রেখে পড়াশোনা করাতে গেলে অনেক টাকার দরকার। টাকা কই পাব?’

জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার বলেন, পত্রিকা ও ইউএনওর মাধ্যমে বিষয়টি জানার পর তাকে সহযোগিতা করা হয়েছে। তার যে কোনো প্রয়োজনে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হবে।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. ওলিউজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সরোয়ার হোসেন, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

(এসএএম/এএস/জুন ২৩, ২০২৩)