ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রচ্ছদ » জাতীয় » বিস্তারিত

ফরিদপুরে দুর্গা প্রতিমা ভাঙচুর

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দায়ীদের গ্রেফতার দাবি ঐক্য পরিষদের

২০২৩ সেপ্টেম্বর ১৯ ১৭:৪৮:১০
৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দায়ীদের গ্রেফতার দাবি ঐক্য পরিষদের

স্টাফ রিপোর্টার : ফরিদপুর সদর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের তাম্বুলখানা বাজার সার্বজনীন কালী ও দুর্গা মন্দিরের নির্মীয়মাণ দুর্গা প্রতিমা গতকাল দিবাগত রাতে ভাঙচুর করেছে দুষ্কৃতিকারীরা। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

সংগঠনের সভাপতিত্রয় ঊষাতন তালুকদার, অধ্যাপক ড. নিমচন্দ্র ভৌমিক ও নির্মল রোজারিও এবং সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. রাণা দাশগুপ্ত আজ এক বিবৃতিতে বলেছেন, প্রতি বছর শারদীয় দুর্গাপূজার প্রস্তুতিকালে সারাদেশ জুড়ে ধারাবাহিকভাবে প্রতিমা ভাঙ্গার ঘটনা ঘটেই চলেছে। কিন্তু এ সমস্ত ঘটনার কোনো বিচার এ যাবৎকালে না হওয়ার ফলে এ ঘটনা প্রতিরোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ফরিদপুরের ঐ একই মন্দিরে ২০২১ সালেও অনুরূপ ঘটনা ঘটে। ঐ সময়ও দুর্গাপূজার প্রস্তুতিকালে ঐ মন্দিরে নির্মীয়মাণ দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর করা হয়। সে সময় দিদার নামে এক দুষ্কৃতিকারীকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। কিন্তু ঐ দিদারকে মানসিক প্রতিবন্ধী হিসেবে দাবি করে ১৫ দিনের মধ্যেই ছেড়ে দেয়া হয়। সে সময় যদি ঐ দুষ্কৃতিকারীর যথাযথ শাস্তির সম্মুখীন করা হতো তাহলে আজকের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হতো না।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে প্রতিমা ভাংচুরের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের সম্মুখীন করার দাবি জানিয়েছেন। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে তারা জানান।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ

আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাম্বুলখানা বাজার সার্বজনীন কালী ও দুর্গা মন্দিরে প্রতিমা ভাংচুরের স্থান পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের ফরিদপুর জেলা নেতৃবৃন্দ।

সংগঠনের জেলা আহ্বায়ক ভবতোষ বসু রায়, ফরিদপুর পৌর শাখার সভাপতি সুমন দে বাবু ও সাধারণ সম্পাদক অপু সাহার নেতৃত্বে সংগঠনের একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন মন্দির কমিটির সভাপতি প্রফুল্ল সরকার ও সাধারণ সম্পাদক ভবেশ চন্দ্র দাস। নেতৃবৃন্দ সেখানে পুলিশ কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদের সাথে কথা বলেন এবং আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দায়ীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানান।

(পিআর/এসপি/সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩)