ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রচ্ছদ » দেশের খবর » বিস্তারিত

যান্ত্রিক ত্রুটি কাটিয়ে তিনদিন পর উৎপাদনে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র

২০২৩ সেপ্টেম্বর ১৯ ১৯:৩৪:২৭
যান্ত্রিক ত্রুটি কাটিয়ে তিনদিন পর উৎপাদনে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র

সরদার শুকুর আহমেদ, বাগেরহাট : যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তিনদিন বন্ধ থাকার পর আবারও উৎপাদন শুরু হয়েছে বাগেরহাটের রামপালে বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানির (প্রা.) কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা দিকে পুনরায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয় কেন্দ্রটিতে। তবে, ৬২০ মেগাওয়াটের প্রথম ইউনিটে বর্তমানে ২৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে।

গত ১৪ সেপ্টম্বর রাতে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ছাই নির্গমন প্রক্রিয়ার যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। এরআগে গত ১৬ জুলাই এই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির টারবাইন (বিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদনের ঘূর্ণায়মান যন্ত্র) ত্রুটির কারণে বন্ধ হয়ে যায়। টারবাইন মেরামত শেষে ২০ জুলাই দুপুর থেকে উৎপাদন শুরু হয়। গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর রামপাল মৈত্রী তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালু হওয়ার পর গত আট মাসে ৭ বার বন্ধ থাকে। উৎপাদন শুরুর পর যান্ত্রিক ত্রুটি ও কয়লা সংকটের কারনে প্রথম গত ১৪ জানুয়ারি, এরপর ১৫ এপ্রিল, ২৩ এপ্রিল, ৩০ জুন, ১৬ জুলাই, ৩০ জুলাই ও সর্বশেষ ১৫ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৯টার দিকে বন্ধ হয়ে যায় রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি। ১৩২০ মেগাওয়াটের রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির ৬২০ মেগাওয়াটের দ্ধিতীয় ইউনিট চলতি মাসের মধ্যেই বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরুর কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি (প্রা.) লিমিটেডর (বিআইএফপিসিএল) উপ-মহাব্যবস্থাক আনোয়ার উল আজিম এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তিনদিন বন্ধ থাকার পর এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির প্রথম ইউনিটের ছাই নির্গমন যন্ত্র মেরামত করে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা দিকে পুনরায় বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। এখন ৬২০ মেগাওয়াটের প্রথম ইউনিটে বর্তমানে ২৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বর্তমানে কোন কয়লা সংকট নেই বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

(এসএসএ/এএস/সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩)