ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রচ্ছদ » আইন আদালত » বিস্তারিত

ফরিদপুরে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা, ২ জনের ফাঁসি

২০২৩ সেপ্টেম্বর ২৫ ১৮:৫৮:৩৫
ফরিদপুরে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা, ২ জনের ফাঁসি

দিলীপ চন্দ, ফরিদপুর : ফরিদপুরে এক নারীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা মামলায় দুই জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার বিকালে এ আদেশ দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মো: হাফিজুর রহমান।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের মামুদপুর হালিমের ভিটা এলাকার সলিম মল্লিকের ছেলে আরজু মল্লিক এবং একই এলাকার বাবুল মিয়ার ছেলে সবুজ মিয়া। এছাড়া দুই জনকে এক লাখ টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আদালতে আরজু মল্লিক উপস্থিত ছিলেন। সবুজ মিয়া পলাতক রয়েছেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি অ্যাডভোকেট স্বপন পাল বলেন, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসের ১২ তারিখ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের বিলমামুদপুর এলাকার একটি কলাবাগান থেকে এক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে কোতয়ালী থানা পুলিশ।

তিনি আরো জানান, ওই নারীর পরিচয় তখন জানা যায়নি। পরে ওই নারীর পরিচয় শনাক্তে কাজ শুরু করে পুলিশ। দীর্ঘদিন পর ওই নারীর পরিচয় শনাক্ত করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই এনায়েত হোসেন। ওই নারীর নাম নাছরিন। পরবর্তীতে জানতে পারেন নাছরিন এর বাড়ী চট্টগ্রামে। নাছরিনের বোন সোনিয়ার সাথে যোগাযোগ করে তার পরিচয় শনাক্ত করেন। পরে তার মোবাইল এর কললিস্ট অনুসরন করে আরজু মল্লিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। আরজু মল্লিক স্বীকার করেন যে ওই নারীকে সে এবং সবুজ মিয়া ধর্ষণ করেন এবং পরবর্তীতে তাকে শ্বাসরোধ করে করে হত্যা করেন।

স্বপন পাল আরো জানান, নাছরিনকে অর্থের লোভ দেখিয়ে আরজু এবং সবুজ ফরিদপুরে নিয়ে আসেন। পরে নাছরিনের সাথে টাকা নিয়ে ঝামেলা হলে নাছরিনকে হত্যা করে কলাবাগানে ফেলে রাখে তারা। দীর্ঘ শুনানি শেষে আরজু মল্লিক ও সবুজ মিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। পাশাপাশি প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।

(ডিসি/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২৩)