ঢাকা, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রচ্ছদ » প্রবাসের চিঠি » বিস্তারিত

চিকিৎসার জন্য দেড় লাখ টাকার সহায়তা

কবি রাধাপদের ওপর হামলার ঘটনায় নিউ ইয়র্কে প্রতিবাদ সমাবেশ

২০২৩ অক্টোবর ০৬ ১৬:৫৪:২১
কবি রাধাপদের ওপর হামলার ঘটনায় নিউ ইয়র্কে প্রতিবাদ সমাবেশ

ইমা এলিস, নিউ ইয়র্ক : কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার চারণ কবি রাধাপদ রায়ের ওপর দুর্বৃত্তের হামলার ঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন নিউ ইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশিরা। স্থানীয় সময় বুধবার (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস ও জ্যামাইকায় অনুষ্ঠিত পৃথক দুটি প্রতিবাদ সভা থেকে ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করে দ্রুত দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রস্থ লালন পরিষদ আয়োজিত নিউ ইয়র্কের বাংলাদেশি অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটস ও জ্যামাইকায় পৃথক দুটি সাংস্কৃতিক সমাবেশে অংশ নেন অংশ নেন কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, সংস্কৃতিকর্মী, সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন অঙ্গনের বিপুল সংখ্যক মানুষ। তারা বাদ্যযন্ত্র, ব্যানার ও প্লাকার্ড নিয়ে সমাবেশে যোগ দেন।

সমাবেশে উপস্থিত বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের নিপীড়িত নিরীহ, দরিদ্র সৃষ্টিশীল মানুষের ওপর হামলা বন্ধে বাংলাদেশের প্রশাসনকে আরও সচেষ্ট হতে হবে। নিউ ইয়র্কের অভিবাসীরা শুধু প্রতিবাদই করেননি আহত চারণ কবি রাধাপদ রায়ের সুচিকিৎসায় আর্থিক ভাবে সহায়তার হাতও বাড়িয়ে দিয়েছেন। এ সময় টেলিফোনে প্রবাসী সংস্কৃতিকর্মীদের পক্ষে রাধাপদ রায়ের সাথে কথা বলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায় ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কন্ঠশিল্পী তাজুল ইমাম।

কবি রাধাপদের চিকিৎসার জন্য উত্তোলনকৃত অর্থ সমাবেশস্থল থেকেই বিশেষ ব্যবস্থায় কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রাধাপদ রায়ের হাতে দেড় লাখ টাকা হস্তান্তর করা হয়। এ বিষয়ে কুড়িগ্রামের স্থানীয় সংবাদকর্মীরা সহযোগিতা করেন। তারা বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নাগেশ্বরী উপজেলায় গিয়ে কবির হাতে নিউ ইয়র্কের বাংলাদেশিদের পাঠানো অর্থ তুলে দেন। এ সময় কবি রাধাপদ রায়ের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অভাব-অনটনে থাকা স্বভাব কবি রাধাপদ রায় দেড় লাখ টাকা পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি আমেরিকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

যুক্তরাষ্ট্র লালন পরিষদের আহ্বায়ক আবদুল হামিদের সভাপতিত্বে দুটি সাংস্কৃতিক সমাবেশে সঞ্চালক ছিলেন সাংস্কৃতিক কর্মী গোপাল সান্যাল ও স্বীকৃতি বড়ুয়া। বক্তব্য রাখেন প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায়, লেখক বেলাল বেগ, মূলধারার রাজনীতিক মোর্শেদ আলম, উদীচীর সভাপতি সুব্রত বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শিল্পী তাজুল ইমাম, সরাফ সরকার, নবেন্দু বিকাশ দত্ত, ওবায়দুল্লাহ মামুন, মিনহাজ আহমেদ শাম্মু, ফকির ইলিয়াস, খুরশিদ আনোয়ার বাবলু, রেজাউল করিম চৌধুরী, হাকিকুল ইসলাম খোকন, সারোয়ার রাফী, সুলতান বোখারী, খাইরুল ইসলাম পাখি, নূরুল আমিন বাবু, ইব্রাহিম চৌধুরী খোকন, আহসান উদ্দিন হাসান, সুলতান আহমেদ, জাকির হোসেন বাচ্চু, পলাশ সাহা, নূরে আলম জিকু, আশরাফুল হাসান বুলবুল, আসলাম খান, মনিকা রায়, সালেহা ইসলাম, মনিকা মোদক, দীলিপ মোদক, আল্পনা গুহ, মনিজা রহমান, জাহেদ শরীফ, শাহাব উদ্দিন সাগর, সাদিয়া খন্দকার, সূতপা সান্যাল, মাহফুজা হাসান, জেবুন্নেছা জোৎস্না, বেনজীর সিকদার, নাসির শিকাদার, পিনাকী তালুকদার, হিরু চৌধুরী, স্বাধীন মজুমদার, ঝর্না চৌধুরী, ও জয়তুর্য্য চৌধুরী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ৩০ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকালে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার গোদ্দারের পাড় এলাকায় নিজ বাড়িতে রাধাপদ রায় হামলার শিকার হন। পাশের এলাকার দুই ভাই মো. রফিকুল ইসলাম ও কদুর আলীর বিরুদ্ধে এ হামলার অভিযোগ ওঠে। কবিকে বাঁশের লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। এতে তাঁর শরীরের বিভিন্ন অংশ জখম হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অপর আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

(আইএল/এসপি/অক্টোবর ০৬, ২০২৩)