ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

প্রচ্ছদ » পাশে দাঁড়াই » বিস্তারিত

গোয়ালন্দে ৩ বছরের শিশুকে বাঁচাতে বাবা মায়ের আকুতি 

২০২২ জানুয়ারি ০৭ ১৭:২৭:৩৩
গোয়ালন্দে ৩ বছরের শিশুকে বাঁচাতে বাবা মায়ের আকুতি 

এম এ হীরা, গোয়ালন্দ : গোয়ালন্দে শিশু মায়া ইসলামের হার্টের তিনটা ছিদ্র জীবন-মরনের সন্ধিক্ষণে শিশু মায়া ইসলাম। শিশু মায়া জন্মের পরে মাঝেমধ্যে নীল হয়ে উঠতো। শিশু মায়া যখন বড় হতে শুরু হয় তখন আট মাস বয়সে তার বাবা-মা প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসককে দেখান। কর্মরত চিকিৎসক তখন শিশু মায়াকে হার্টের ভালো ডাক্তার দেখাতে বলেন। তখন তার পিতা-মাতা তাকে ঢাকা নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে নিয়ে যায়। শিশু মায়াকে দেখানো হয় ডাক্তার এএসএম মাহসুদুজ্জামান এমবিবিএস ঢাকা বিসিএস স্বাস্থ্য, এমডি শিশু ডিসিএইচ শিশুস্বাস্থ্য এফসিপি আমেরিকা পিজিপি ইন বস্টন শিশু হৃদরোগ বিভাগ এনআইসিডিডি শহীদ সোহরাওয়াদী মেডিকেল কমপ্লেক্স ঢাকা, তিনি শিশু মায়াকে দেখে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার নির্দেশ দেন পরীক্ষা-নিরীক্ষা তার পিতা-মাতা করে রিপোর্ট দেখান ডাক্তারকে। তখন ডাক্তার ঘোষণা দেন শিশু মায়ার হার্টে তিনটা ছিদ্র দেখা গেছে। শিশু মায়া কে সুস্থ করে তুলতে এখন অপারেশন করা প্রয়োজন।

এরপর থেকেই পাগলের মত শিশু মায়ার পিতামাতা ছুটছেন। শিশু মায়ার পিতা-মাতা এলাকাবাসীর কাছ থেকে দান সহযোগিতা নিয়ে তাকে ভারত নিয়ে যান। ওইখান থেকেও একই কথা বলে, শিশু মায়াকে অপারেশনের জন্য।

শিশু মায়া দারিদ্র পরিবারের সন্তান। গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের শ্রীধাম দত্তপাড়ার গোলাম মোস্তফার আদরের কন্যা মায়া।গোলাম মোস্তফা স্থানীয় ভিক্টর ফিট কোম্পানিতে দিনমজুর হিসেবে কাজ করেন।

শিশু মায়াকে অপারেশন করাতে এখন ৩ লক্ষ টাকা প্রয়োজন যা তার পরিবারের ব্যয় করা সম্ভব নয়। শিশু মায়ার মা মমতা বেগম এখন এলাকাবাসীর ও বিত্তবানদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে তার মেয়ের অপারেশনের টাকা জোগাড় করতে।

শিশু মায়ার মা মমতা বেগম মানবিক মানুষদের কাছে অনুরোধ করে বলেন, আমার কন্যা শিশুকে বাঁচাতে চাই। আপনারা আপনাদের সাধ্য অনুযায়ী আমাকে সহযোগিতা করুন। আপনাদের সহযোগিতাই পারে আমার শিশুকন্যাকে বাঁচিয়ে তুলতে। আমাদের টাকার অভাবে আমার শিশুকে বাড়িতে রেখেছি। টাকা যোগাড় করে অপারেশন করবো। আমাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করুন। শিশু মায়ার পিতা গোলাম মোস্তফা- ০১৭৯২-০৮৩৪১৪।

(ওএস/এসপি/জানুয়ারি ০৭, ২০২২)