ঢাকা, শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯

প্রচ্ছদ » দেশের খবর » বিস্তারিত

দেবহাটায় পুত্রবধূর ধাক্কায় মাথায় আঘাত লেগে শাশুড়ির মৃত্যু 

২০২২ জুন ২৩ ১৭:৩৬:৩৫
দেবহাটায় পুত্রবধূর ধাক্কায় মাথায় আঘাত লেগে শাশুড়ির মৃত্যু 

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : পুত্রবধূর আঘাতে শাশুড়ি নিহত হয়েছেন। বুধবার রাত ১২টার দিকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। বুধবার বিকেলে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার দেবীশহর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম মর্জিনা খাতুন (৬৪)। তিনি দেবহাটার দেবীশহর গ্রামের আব্দুর রহমানের স্ত্রী। আঘাতকারি পুত্রবধুর নাম মিতা পারভীন (২৫)। তিনি দেবীশহর গ্রামের হাসান কারিগরের স্ত্রী ও মর্জিনা খাতুনের ছোট বউমা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দেবীশহর গ্রামের কারিগর পাড়ায় বসবাসকারি এক ব্যক্তি জানান, তুচ্ছ কিছু কারণে দীর্ঘদিন ধরে বউ-শাশুড়ির পারিবারিক কলহ ছিল চরমে। বুধবার বিকেলে রান্না করা নিয়ে বউমা-শাশুড়ির ঝগড়া শুরু হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শাশুড়ি মর্জিনা খাতুন বউমা মিতা পারভীনকে দুটো চড় মারেন। ক্ষিপ্ত হয়ে বউমা এসময় শাশুড়িকে দেওয়ালে ধাক্কা মারেন। এতে শাশুড়ি মাথা ফেটে গুরুতর জখম হন। মর্জিনা খাতুনকে পরিবারের সদস্যরা প্রথমে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বুধবার রাত ১২টার দিকে মর্জিনা খাতুন সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা যান।

মর্জিনার স্বামী আব্দুর রহমান জানান,মরদেহ বাড়িতে এনে রাখা হয়েছে। বাদ যোহর জানাজার নামাজ হবে। পারিবারিক কলহে বউমার দেওয়া ধাক্কায় শাশুড়ি মারা গেছেন,এটা স্বীকার করে তিনি বলেন,মামলা-মোকদ্দমার ঝামেলায় যাবনা বিধায় ময়নাতদন্ত করা হয়নি।

দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ ওবায়দুল্লাহ জানান,খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(আরকে/এসপি/জুন ২৩, ২০২২)