ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১

প্রচ্ছদ » দেশের খবর » বিস্তারিত

কালিগঞ্জ সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ 

২০২৪ জুলাই ১০ ১৯:৩৮:৪১
কালিগঞ্জ সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ 

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার সরকারি পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গোপাল চন্দ্র গাইনের বিরুদ্ধে প্রায় ৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি কালিগঞ্জে টক অব দা টাউনে পরিণত হয়েছে।

উপজেলা জেলা হিসাবরক্ষণ অফিসের কর্মকর্তা মোঃ নাজিম উদ্দীন এর কাছ থেকে প্রাপ্ত সেবা খাতের বাজেট থেকে প্রাপ্ত অর্থনৈতিক কোড ৩২৬৫১০৬ ঘেটে অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায়, চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের পোষাক বাবদ ২০ হাজার টাকা ২০২৩-২৪ অর্থ বছরের প্রদান করা হয়নি। কেন তাদের অনুদান পায়নি বিষয়টি প্রধান শিক্ষককের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি তাদের বলেছি কিন্তু তারা সময় পাচ্ছেনা।

একই নথির অর্থনৈতিক কোড ৪১১২৩০৬ এর বিপরীতে নিয়ম ছাড়াই গবেষণা যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি বাবদ ১লক্ষ ২০ হাজার টাকা, ৩২৫৬১০২ কোড রাসায়নিক দ্রব্যাদি বাবদ ৩৫ হাজার টাকা, ৩২৫৮১০৫ কোড অন্যান্য যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম (মেরামত বাবদ) ৩৫ হাজার টাকা, ৪১১২৩১২ কোড শিক্ষা ও শিক্ষা উপকরণ বাবদ ৩৫ হাজার টাকা খরচ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে গোপাল কুমারগাইন বলেন যে, আমাদের এই মালামাল গুলো আগামী কাল ১১ জুলাই আসবে তখন আমরা হিসেব দেখাবো।

মালামাল ক্রয় এর ক্ষেত্রে কোন নিয়ম মানা হয়নি। রেজুলেশন করা হয়নি, বিজ্ঞানাগারের মালামাল ক্রয়ের ক্ষেত্রে কোন নিয়ম মানা হয়নি। কোটেশন নেওয়া হয়নি, দরপত্র আহব্বান করা হয়নি। উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস থেকে ১১ ও ১৫ জুন ২০২৪ তারিখে ছাড় করানো ৫ লক্ষ ৫১ হাজার ৫৫২ টাকা কোথায় তার অস্তিত্ব খুঁজতে গেলে অনেকে বলেন যে, টাকাটি তার ব্যক্তিগত একাউন্টে।
বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় হলে গতকাল ৯ জুলাই মঙ্গলবার তড়িঘড়ি করে প্রধান শিক্ষক গোপাল কুমার গাইন সাতক্ষীরা জেলা্ সদর থেকে উচ্চ মুল্যে কিছু বই ও ক্রীড়া সামগ্রী ক্রয় করে অফিসে রেখেছে।

এ বিষয় নিয়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শাজাহান কবীর জানান, এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(আরকে/এসপি/জুলাই ১০, ২০২৪)